ইরানের সব বাজে আচরণ খতিয়ে দেখছেন ট্রাম্প প্রশাসন

প্রকাশঃ অক্টোবর ৭, ২০১৭ সময়ঃ ১২:৩২ অপরাহ্ণ.. সর্বশেষ সম্পাদনাঃ ১২:৩২ অপরাহ্ণ

মার্কিন প্রশাসনের দৃষ্টিতে ইরান নানান অভিযোগে অভিযুক্ত। এরই পরিপ্রেক্ষিতে তাদের মতে ইরানের ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা, ‘সন্ত্রাসে মদদ দেওয়া’ ও সাইবার তৎপরতার বিরুদ্ধে যুক্তরাষ্ট্রের নতুন কিছু প্রতিক্রিয়া শিগগিরই ঘোষণা দিয়ে জানাবেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প।

স্থানীয় সময় শুক্রবার দেশটির প্রেসিডেন্টের দপ্তর হোয়াইট হাউসের পক্ষ থেকে এমনটি বলা হয়েছে।

হোয়াইট হাউসের প্রেস সেক্রেটারি সারাহ হুকাবি স্যান্ডার্স সাংবাদিকদের বলেন, ‘প্রেসিডেন্ট শুধু একটি মাত্র বিষয়ে নজর দিচ্ছেন না। তিনি ইরানের সব বাজে আচরণের বিষয়টি খতিয়ে দেখছেন।’

‘শুধু পরমাণু চুক্তি নিয়ে বাজে আচরণ নয়, ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা, আঞ্চলিক অস্থিতিশীলতা তৈরি, সন্ত্রাসে রাষ্ট্রীয় সমর্থনে এক নম্বর হওয়া, সাইবার হামলা ও অবৈধ পরমাণু কর্মসূচির (বিষয়ে নজর দেবেন প্রেসিডেন্ট)’, যোগ করেন সারাহ।

হোয়াইট হাউসের প্রেস সেক্রেটারি আরো বলেন, ট্রাম্প ‘বিশদ একটি কৌশলের দিকে নজর দিচ্ছেন, যাতে সবগুলো বিষয় অন্তর্ভুক্ত থাকবে, নির্দিষ্ট কোনোটি নয়’।

ট্রাম্প প্রশাসনের জ্যেষ্ঠ এক কর্মকর্তা গত বৃহস্পতিবার রয়টার্সকে বলেন, ইরানের পরমাণু সমৃদ্ধকরণ কর্মসূচি বন্ধে দেশটির সঙ্গে বিশ্ব শক্তিগুলোর করা পরমাণু চুক্তি থেকে সরে আসার বিষয়ে নিজের অবস্থানের কথা জানাতে পারেন ট্রাম্প। এতে করে চুক্তিটি অকার্যকর হয়ে পড়তে পারে।

আরেক কর্মকর্তা জানান, ১২ অক্টোবর ইরানের বিষয়ে বক্তব্যে দেওয়ার কথা রয়েছে ট্রাম্পের। তবে বিষয়টি এখনো নিশ্চিত নয়।

প্রতিক্ষণ/এডি/শাআ

আরো সংবাদঃ

মন্তব্য করুনঃ

পাঠকের মন্তব্য



আর্কাইভ

ফেব্রুয়ারি ২০১৮
শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
« জানুয়ারি    
 
১০১১১২১৩১৪১৫১৬
১৭১৮১৯২০২১২২২৩
২৪২৫২৬২৭২৮  
0cc0