খোলাচিঠি: সুলতান সুলেমান বিরোধী আন্দোলন কাহার স্বার্থে?

প্রকাশঃ ডিসেম্বর ৫, ২০১৬ সময়ঃ ৫:০৭ অপরাহ্ণ.. সর্বশেষ সম্পাদনাঃ ১০:৪১ পূর্বাহ্ণ

রাকিব হাসান:

sultan-2

প্রিয় কলাকুশলীবৃন্দ,
আপনাদের অযুত-কোটি ছালাম না দিয়া থাকিতে পারিলাম না। বহুত তো আন্দোলন করিতেছেন আপনারা !! আন্দোলনের স্রোতে আপনারা এতটাই দিশেহারা হইয়াছিলেন যে, শহীদ মিনারে জুতা খুলিয়া উঠিবার কথা বেমালুম ভুলিয়া গিয়াছেন!

তবে যে দাবিসকল লইয়া আন্দোলন করিতে মাঠে নামিয়াছেন; সেখানে কি ঘুনাক্ষরেও দর্শক চাহিদার কোনো প্রতিফলন রহিয়াছে? নাকি আমাদের দর্শকদের ভালো লাগা-মন্দ লাগার বিষয়টির গুরুত্ব এখনও আঁচ করিতে পারেন নাই? যদি নাই পারেন তাহা হইলে কাহার স্বার্থে আন্দোলনে ঝাঁপ দিয়াছেন?

কোথাকার কোন ‘সুলতান সুলেমান’ আসিয়া আপনাদের রাতের ঘুম কীভাবে কাড়িয়া লইলো; তাহা আমরা সাধারণ দর্শক কোনোপ্রকারেই বুঝিতে পারিতেছিনা। তবে সুলেমানকে ঠেকাইবার জন্য আপনারা একতাবদ্ধ হইয়া ঝাঁপাইয়া পড়িয়াছেন দেখিয়া আমরা দর্শকসকলও উদ্বিগ্ন হইয়া গিয়াছি। সুলেমানি শক্তির জোরে কীভাবে আপনাদের ‘বাড়া ভাতে ছাই পড়িলো’তাহা জানিবার বড্ড ইচ্ছা হয়।

তবে বিজ্ঞজনের আলোচনায় আমরা আমজনতা বুঝিতে পারিয়াছি সুলেমান আপনাদের স্বার্থে ব্যাঘাত ঘটাইয়াছে। কিন্তু এও জানিয়া রাখুন, সুলেমান আমাদের মন জয় করিয়াছে, যাহা আপনারা মানিতে পারিতেছেন না। অবশ্য মানিবার কথাও নহে। কিন্তু ইহাতো আপনাদের ভাবিয়া দেখা দরকার; কোন যাদুর বলে একটা অখ্যাত চ্যানেলকে সুলেমান টিআরপির শীর্ষে তুলিয়া দিয়াছে।

দর্শকদিগের কাছে সুলেমানের আকাশচুম্বী লোকপ্রিয়তার কারণে নিজেদের ব্যবসায়িক স্বার্থ বিবেচনাপূর্বক অন্যান্য চ্যানেলেও যখন ডাবিং সিরিয়ালের প্রতি ঝুঁকিয়া পড়িল; তখন সুলেমান বধ করিতে আপনারা মরিয়া হইয়া উঠিলেন।

sultan-1

সে যাহাই হোক, প্রাইম টাইমে ঐসব ডাবিং সিরিয়াল প্রচার করিয়া কেবল যে আপনাদের স্বার্থহানী হইয়াছে; তাহা আন্দোলন দেখিয়া বুঝিতে পারিয়াছি। কিন্তু দর্শককূল কী চায়; তাহা কি একবারও ভাবিয়াছেন? নাকি ভাবিবার প্রয়োজনও বোধ করেন নাই ?

যে দর্শক এতকাল ধরিয়া স্টার জলসা, জি বাংলা, স্টার প্লাসের সিরিয়ালে মুগ্ধ হইয়া দিবানিশি সময় পার করিতো;  হঠাৎ যখন তাহারাই চোখ মেলিয়া দেশি চ্যানেলে সুলেমান দেখা শুরু করিলো;  আপনাদের আর সহ্য হইলো না।

আমজনতার আগ্রহের বিষয়টি মাথায় রাখিয়া চ্যানেলগুলো যখন ঐ ধরনের ডাবিং সিরিয়াল দেখানো শুরু করিলো; তখন শুধু আপনাদের বাড়া ভাতে ছাঁই পড়ে নাই, অস্তিত্বের সংকটেও টান পড়িয়াছে! আপনাদের খুঁটি কি এতই নড়বড়ে??

আপনারা মুক্তবাজার অর্থনীতি আর আকাশ সংস্কৃতির কথা খুব গর্ব সহকারে বলেন। তাহলে তাহাদের সাথে পাল্লা দিবার মুরোদ নাই কেন? নাকি প্রতিযোগিতায় টিকিতে না পারিয়া এখন আকাশ কীভাবে ঢাকিয়া দেয়া যায় সে হিসেব কষিতেছেন??

অচমকা ‘দেশীয় এতিহ্য-সংস্কৃতি’ গেল গেল বলিয়া যে রব উঠাইলেন সম্মিলিতভাবে; তাহা আগে কখনও দেখিবার সুযোগ পাই নাই। কিন্তু একথা কি ভাবিয়াছেন, আমরা দর্শকূল যাহা চাই; তাহা আপনারাই বা দিতে পারিতেছেন না কেন? কেন আপনাদের ব্যর্থতার দায়ভার কলুর বলদের মতো নিরপরাধ দর্শককূলের ওপর চাপাইয়া দিতে চান?

অাপনারা সংস্কৃতি-ঐতিহ্যের কথা বলিয়া মুখে ফেনা তুলিয়া ফেলেন, কিন্তু দেশের ইতিহাস-ঐতিহ্য- সংস্কৃতি কিংবা দেশপ্রেম নিয়ে কোনো নাটক-সিরিয়াল কি তৈরি করিয়াছেন? কেন করিলেন না??

আমাদের তো প্রীতিলতা, সূর্যসেন, ঈশা খাঁ, ভাসানী, বঙ্গবন্ধু, জাতীয় চার নেতাসহ অসংখ্য নায়ক রহিয়াছে, যাহাদের নাম ইতিহাসের পাতায় স্বর্ণাক্ষরে লিপিবদ্ধ রহিয়াছে। কই তাহাদের নিয়েতো সিরিয়াল বানাইলেন না। কেন বানাইলেন না? তাহার জবাব কি আপনাদের কাছে রহিয়াছে? এছাড়া যে সাতজন বীরশ্রেষ্ঠ দেশের জন্য জীবন বাজি রাখিয়াছিলেন, তাহাদের জীবনকাহিনীও তো অনেক সমৃদ্ধ। কালে কালে সময়তো আর কম হইলো না। কিন্তু তাহাদের নিয়ে কি কিছু করিয়াছেন?

3018cbffc5cdf4659e563dc4baadb36f

ইতিহাসনির্ভর সিরিয়াল তৈরির মাধ্যমে আপনারাও তো দর্শক টানিতে পারিতেন। আপনাদের ব্যর্থতাই কি সাধারণ দর্শকদের ‘সুলতান সুলেমানের’ দিকে ঠেলিয়া দেয় নাই??

এত এত দেশপ্রেমের কথা বলেন, কই ৫ দাবির মধ্যে কোথাও ভারতীয় সিরিয়াল অথবা ভারতীয় চ্যানেল বন্ধের দাবীতো দেখিতে পাই নাই। তাহলে কি ধরিয়া লইবো সকলই লোক দেখানো, ষোলো আনাই মিছে?

আপনারা সুলতান সুলেমানকে প্রধান প্রতিপক্ষ বা শত্রু ভাবিলেও; এটা জানিয়া রাখুন ভারতীয় সিরিয়াল আপনাদের জাত শত্রু। কারণ তাহারাই অধিকাংশ দর্শক (সুলেমান শুরুর আগ পর্যন্ত) দীর্ঘদিন ধরিয়া কব্জা করিয়া রাখিয়াছিলেন। সুতরাং শত্রু কাহারা আর মিত্রই বা কাহারা তাহা অনুভব করিতে শিখুন হৃদয় দিয়ে।

যেহেতু ভারতীয় সিরিয়াল বন্ধে আপনাদের কোনো দাবি নাই সুতরাং আমরা এটা নিশ্চিতভাবে বলিতে পারি; দর্শকদিগের প্রতিও আপনাদের কোনো ভালবাসা নাই। 

কীভাবে বুঝলাম? প্রাইম টাইমে টেলিভিশনে ডাবিং সিরিয়ালের পরিবর্তে নাটক প্রচারই আপনাদের মূল উদ্দেশ্য। যেন নিজেদের রুটি-রুজি বহাল তবিয়তেই থাকে। কিন্তু দর্শক যদি ঐ সময়ে বাংলা নাটক না দেখিয়া ভারতীয় সিরিয়ালে বুঁদ হইয়া থাকে; তাহাতেও আপনাদের আপত্তি রহিবে না। কারণ দর্শক ধরিয়া রাখা মূল উদ্দেশ্য নয়; স্বার্থসিদ্ধিই  হইল আসল কথা ।

‘আপন স্বার্থই’ যখন সবচাইতে বড় আপনাদিগের তরে; তখন প্রতিটা চ্যানেলের কাছেও ব্যবসায়িক কারণে দর্শক স্বার্থই বড়। কারণ দর্শক বেশি হইলে তাদের টিআরপি বাড়ে, আর ব্যবসায়িক স্বার্থও হাসিল হয়। এইবার বলুন, এতকাল আপনাদের মতো হীন স্বার্থপরদিগের হাতে আপন সংস্কৃতি রক্ষার দায়িত্ব কেন তুলিয়া দিয়াছিলাম?? এতো শিয়ালের কাছে মুরগী বাগা রাখিবার মতোই হইলো!

দর্শকশ্রোতা বিশ্লেষণ (অডিয়েন্স এনালাইসিস) না করিয়া জনবিচ্ছিন্ন আন্দোলনে আদৌ কি কোন ফায়দা হইবে? তাহা একবার ভাবিয়া দেখা প্রয়োজন।
আপনাদের বুঝিয়া লওয়া উচিত, দর্শকরা যখন ডাবিং সিরিয়ালের মাধ্যমে দেশিয় চ্যানেলে ফিরিতে শুরু করিয়াছে তখন তাহাদের বঞ্চিত করিতে উঠিয়া পড়িয়া লাগিয়াছেন! এটা কি হিতে বিপরীত হইবে না?

সোনার ডিম পাড়া হাঁসকে একেবারে জবাই করিয়া ফেলিবার মতো যদি হইয়া যায়। তাহা হইলে ইহার দায়ভার কে লইবে ?

একটা দৃষ্টান্ত দিলে সম্ভবত আরও পরিস্কার হইবেন। যেমন- একসময় স্বদেশের বই পড়িবার পাঠক ছিল খুবই নগন্য। আর সেই গুটি কয়েক পাঠকবৃন্দ কলিকাতার লেখকদের লেখা; যেমন- সুনীল, শীর্ষেন্দু, বুদ্ধদেব বসু পড়িতো। কিন্তু স্বদেশী কথা সাহিত্যিক হুমায়ূন আহমেদ আসিয়া আমাদিগের মনোজগতে এক মহা জাগরণ সৃষ্টি করিলেন। তিনি স্বদেশী পাঠকদেরকে নিজভূমে শুধু ফিরিয়াই আনিলেন না, উপরন্তু অসংখ্য-অগণিত নতুন এবং তরুণ পাঠক সৃষ্টি করিলেন।

সুতরাং ডাবিং বন্ধের দাবি না তুলে, পারিলে হুমায়ূনের মতো একটা জাগরণ সৃষ্টি করুন; যেন দর্শক আপনাদের নির্মিত নাটক-সিরিয়ালে দৃষ্টি নিবদ্ধ করিতে একান্তভাবে বাধ্য হয়। মনে রাখিবেন, বৈশ্বিক সাংস্কৃতিক পণ্যের মোকাবেলা আপনাকে দেশীয় সংস্কৃতি দিয়াই করিতে হইবে। তাহা করিতে পারিলেই আমাদের মতো সাধারণ দর্শককূলের মন জয় করিতে পারিবেন।

এই মুহূর্তে সুলেমান এর বিকল্প কী আছে আপনাদের কাছে; যাহা দেখিয়া আমরা হুমড়ি খাইয়া পড়িব?

টেলিভিশনে প্রচারিত হাতেগোনা দু-একটি নাটক ছাড়া বাকী নাটকগুলো কতটুকু মানসম্মত কিংবা দর্শক গ্রহণযোগ্যতা পাইতেছে, সে পরিসংখ্যান কি আপনাদিগের সহিত রহিয়াছে? এক ঘেয়েমি গল্প আর ঘন ঘন বিজ্ঞাপন বিরতিতে বিরক্ত হইয়া দর্শকরা যে চ্যানেল পাল্টাইয়া ফেলে তাহা কি আপনারা অবগত নহেন??sultan-3

‘আকাশ সংস্কৃতি’র দোহাই দিয়ে ভারতীয় সিরিয়ালের বিরূদ্ধে একটি বাক্যও আপনাদের মুখ হইতে বাহির হয় না। আর সেই আকাশ সংস্কৃতির টানে দর্শক যখন সুলেমানে অভিভূত হয় তখন আপনাদের আঁতে ঘা লাগে? কিন্তু ঐ একই দর্শক যখন দিনের পর দিন বছরের পর বছর ভারতীয় চ্যানেলে বুঁদ হইয়া ছিলো; তখন কোথায় রহিয়াছিলো আপনাদিগের আন্দোলন? কেন, কার স্বার্থে মুখে কুলুপ আঁটিয়া ছিলেন? কেন তাহাদের ফিরাইবার চেষ্টা করিলেন না?

এখন তুর্কি সুলতান সুলেমান আসিয়া যখন এই বাংলার দর্শককূলের মন জয় করা শুরু করিলো; তখন আপনাদের ঘুম ভাঙিলো। সুলেমান বন্ধ না হওয়া পর্যন্ত পেটের ভাত হজম হইবে না বলিয়াও ঘোষণা দিলেন! একবারও কি ভাবিয়াছেন এই বিপুল সংখ্যক দর্শক ধরিয়া রাখিবার জন্য সুলেমানের বিকল্প কোনো কিছু আপনাদের ভান্ডারে আছে কিনা?

যদি না থাকে তাহলে আন্দোলন ছাড়িয়া দিন। কারণ এইটাই শতভাগ নিশ্চিত, দেশি চ্যানেল হইতে স্বদেশী দর্শক আবারো ভারতীয় চ্যানেলের দিকেই চলিয়া যাইবে। এর ফলে চ্যানেলের ব্যবসা যেমন কমিবে; তেমনি টিআরপিও তলানিতে গিয়া ঠেকিবে।

পরিশেষে আপনাদের একটা ইতিহাস স্মরণ করাইয়া দিতে চাই। আশি এবং নব্বই এর দশকে দেশের একমাত্র টিভি চ্যানেলে ম্যাকগাইভার, টারজান, দ্যা গার্ল ফ্রম টুমোরো, টিপু সুলতান, আলিফ লায়লা, সিন্দাবাদের পাশাপাশি কোথাও কেউ নেই, সকাল-সন্ধ্যা, বহু্ব্রীহি, অয়োময়, এইসব দিনরাত্রি, আজ রবিবার, রূপনগর এর মতো অসংখ্য নাটক তুমুল জনপ্রিয় হইয়াছিল। তখন বিদেশী ডাবিং সিরিয়াল স্বদেশী যোগ্য পরিচালক-কলাকুশলীদের ভাত মারিতে পারে নাই। অথচ এখন এত এত চ্যানেল থাকিবার পরও আপনাদের বাড়া ভাতে ছাই পড়িতেছে? কেন?? এখনই বিষয়টি গভীর মনোযোগের সহিত ভাবিয়া দেখা দরকার।

যেসকল কলাকুশলী মঞ্চ হইতে অভিনয় করিতে করিতে টিভি নাটকে আসিয়াছেন তাহারা কি মঞ্চে ওডিসি, ম্যাগবেথ, শেক্সপিয়রসহ অসংখ্য অনুবাদ করা নাটকে অভিনয় করেন নাই? নাকি ওগুলো বিদেশ থেকে অনুবাদকৃত; যাহা আপনারা জানিতেন না! আপনাদের কথা যদি মানিয়া লইতে হয়; তাহলে আজ অবদি বিদেশী যে সকল বই অনুবাদ করা ইইয়াছে সেগুলোও বাতিল করিতে হইবে !!

পরিশেষে আবারও সবিনয়ে বলিতে চাই, দয়া করিয়া সুলতান সুলেমানের বিরুদ্ধে লাগিবেন না, বরং পারিলে দেশি ইতিহাস-ঐতিহ্য লইয়া মানসম্মত গল্প তৈরি করুন, নাট্যরূপ দিন আর দর্শকদেরকে আয়নাবাজির মতো ভেল্কি দেখাইয়া কাছে টানিবার চেষ্টায় ব্রত হোন। পারিবেন তো?? না পারিলে সমস্যা নাই। আমাদের হস্তেও রিমোর্ট কন্ট্রোল রহিয়াছে, দর্শক হিসেবে আমাদিগেরও স্বতন্ত্র স্বাধীনতা আছে। সে স্বাধীনতায় হস্তক্ষেপ করিবার দু:সাহস নিশ্চয়ই আপনারা দেখাইতে পারিবেন না। সুতরাং সময় থাকিতে দর্শকের অনুভূতিকে শ্রদ্ধা করিতে শিখুন ।

আপনাদিগের জন্য শুভকামনা জানাইয়া আজিকার মতো বিদায় লইলাম।

ইতি
সুলতান সুলেমানের অসংখ্য ভক্তের মধ্যে আমিও এক নগন্য ভক্ত।

রাকিব হাসান

লেখক: সাংবাদিক

===

আরো সংবাদঃ

মন্তব্য করুনঃ

পাঠকের মন্তব্য



আর্কাইভ

অক্টোবর ২০১৭
শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
« সেপ্টেম্বর    
 
১০১১১২১৩
১৪১৫১৬১৭১৮১৯২০
২১২২২৩২৪২৫২৬২৭
২৮২৯৩০৩১  
0cc0