প্রধানমন্ত্রীর সহায়তা চান ডিসিসি মার্কেটের ব্যবসায়ীরা

প্রকাশঃ জানুয়ারি ৪, ২০১৭ সময়ঃ ৬:২১ অপরাহ্ণ.. সর্বশেষ সম্পাদনাঃ ৬:২১ অপরাহ্ণ

ss20170103135446গুলশানের ডিসিসি মার্কেটে ভয়াবহ আগুনে সব হারিয়ে নিঃস্ব ব্যবসায়ীরা ওই মার্কেটেই নতুন করে ব্যবসা শুরু করতে চান। এজন্য তারা দ্রুত নতুন ভবন তৈরি করতে প্রধানমন্ত্রীর সহায়তা চেয়েছেন।
সোমবার গভীর রাতে ওই অগ্নিকাণ্ডে পুড়ে গেছে মার্কেটের কয়েকশ দোকান। রাত থেকে মঙ্গলবার প্রায় সারাদিনের চেষ্টায় ফায়ার সার্ভিস ২২টি ইউনিট আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে।

তবে বুধবারও মার্কেটের কাঁচাবাজার অংশের বিভিন্ন স্থান থেকে ধোঁয়া উঠতে গেছে। বাতাসে ছিল পোড়া গন্ধ। ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা এখনও সেখানে পানি ছিটিয়ে যাচ্ছেন।

এরই মধ্যে ধ্বংসস্তূপ হাতড়ে বেড়াচ্ছেন অনেক ব্যবসায়ী- আশা যদি বেঁচে যাওয়া কিছু পাওয়া যায়। সকাল থেকে মার্কেটের সামনে জড়ো হয়েছেন দোকান মালিকরা। অনেকেই বেঁচে যাওয়া মালামাল সরিয়ে নিচ্ছেন।

আগের মতোই ব্যবসায়ীদের অভিযোগ, আগুন লাগাটা ‘পরিকল্পিত’। তারা এ ব্যাপারে যথাযথ ব্যবস্থা নিতে প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ চান। দোকান মালিক সমিতির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মো. বাবুল জানান, আগুন লাগার আগের রাতে মাত্র এক হাজার টাকা নিয়ে বাসায় গেছেন।

“পাঁচ লাখ টাকা ক্যাশে রেখে গিয়েছিলাম। আগুনে সব শেষ। আমরা নিঃস্ব হয়ে গেছি। আমরা আবার উঠে দাঁড়াতে চাই। এজন্য অতি তাড়াতাড়ি আমাদের মার্কেটের ভবনটা তৈরি করে দিতে প্রধানমন্ত্রীর সহায়তা চাই। আমরা আর্থিক সাহায্য চাই না। আমাদের দোকানটা দ্রুত তুলে দিলে ব্যবসা করে খেতে চাই।”

নিজের দোকান পুড়ে গেছে। আরেক বড় ভাইয়ের দোকানের মালামাল সরানোর কাজে সাহায্য করছিলেন তরুণ ব্যবসায়ী সুবর্ণা ভ্যারাইটিজের মালিক মো. ফয়জুর রহমান।

তিনি বলেন, “আমার ৩ নম্বর দোকানটা ছিল কাঁচা মার্কেটের একেবারে সাথে। শীতের জন্য মাত্র কয়েকদিন আগে ৬০ লাখ টাকার মাল তুলেছি। সব শেষ। রাতে দোকানে যাওয়ার চেষ্টা করেছিলাম। পারি নাই। সকালে আগুন নিভলে দেখি সব পুড়ে ছাই।”

প্রতিক্ষণ/এডি/শাআ

আরো সংবাদঃ

মন্তব্য করুনঃ

পাঠকের মন্তব্য

লাইভ ক্রিকেট স্কোর

আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০
১১১২১৩১৪১৫১৬১৭
১৮১৯২০২১২২২৩২৪
২৫২৬২৭২৮২৯৩০৩১
0cc0