যুক্তরাষ্ট্রকে ক্ষেপণাস্ত্র হামলার হুমকি উত্তর কোরিয়ার

প্রকাশঃ আগস্ট ৯, ২০১৭ সময়ঃ ১১:১৩ পূর্বাহ্ণ.. সর্বশেষ সম্পাদনাঃ ৭:৪৪ অপরাহ্ণ

উত্তর কোরিয়া মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের নিয়ন্ত্রণাধীন প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চল গুয়াম সেনা ঘাঁটিতে ক্ষেপণাস্ত্র হামলার কথা ভাবছে। যুক্তরাষ্ট্রকে ফের পারমাণবিক হামলার হুমকি দিলে, সমুচিত জবাব দেওয়া হবে বলে প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প হুঁশিয়ারি দেওয়ার কয়েক ঘন্টার মধ্যে এ হুমকি দিল উত্তর কোরিয়া।

উত্তর কোরিয়ার রাষ্ট্রীয় সংবাদ সংস্থা কেসিএনও জানিয়েছে, কৌশলগতভাবে যুক্তরাষ্ট্রের জন্য গুরুত্বপূর্ণ একটি স্থাপনা হিসেবে পরিচিত গুয়ামে দেশটি মাঝারি থেকে দূর পাল্লার রকেট নিক্ষেপ করার পরিকল্পনা করছে। মূলত গুয়ামে যুক্তরাষ্ট্রের বিমান বাহিনীর একটি ঘাঁটি রয়েছে।এ বিবৃতির পর দুই দেশের মধ্যে নতুন করে উত্তেজনা শুরু হয়েছে।

এর আগে ওয়াশিংটন পোস্ট-এ প্রকাশিত এক সংবাদে মার্কিন গোয়েন্দা কর্মকর্তাদের বরাত দিয়ে বলা হয়, উত্তর কোরিয়া ইতোমধ্যেই এমন ক্ষুদ্রকায় পারমাণবিক ওয়ারহেড তৈরি করতে সমর্থ হয়েছে, যা কোনো ক্ষেপণাস্ত্রের ভেতরে বসিয়ে সেটিকে কার্যকর করা সম্ভব হবে।
সেক্ষেত্রে ওয়াশিংটন পোস্টের খবর সঠিক হলে, উত্তর কোরিয়া সত্যি পরমাণু অস্ত্র গড়ে তুলেছে এবং মনে করা হচ্ছে, ধারণার চেয়ে দ্রুত গতিতে তারা যুক্তরাষ্ট্রকে আঘাত হানতে পারবে। মূলত গণমাধ্যমে প্রকাশিত ঐ প্রতিবেদনের সূত্র ধরেই প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প উত্তর কোরিয়াকে হুঁশিয়ারি দিয়েছিলেন।

এদিকে মাত্র দু’দিন আগেই উত্তর কোরিয়ার ওপরে নতুন করে আরেক দফা নিষেধাজ্ঞার অনুমোদন দিয়েছে জাতিসংঘ। সিএনএন এর খবরে জানা যায়, উত্তর কোরিয়া যাতে বিশ্বের অন্য দেশ থেকে অর্থ আয় করতে না পারে সে জন্য বিধিনিষেধ আরোপ করা হয়েছে। এ ছাড়া দেশটির রফতানির ওপর কড়া নিষেধাজ্ঞা দেওয়া হয়েছে।
দেশটি মূলত কয়লা, লোহা ও সামুদ্রিক খাবার রফতানি করতো। কিন্তু এখন এগুলো নিষেধাজ্ঞার মধ্যে পড়ছে। এ ছাড়া বিভিন্ন বিদেশি ব্যাংক ও কোম্পানির সঙ্গে যে সব যৌথ কারবার চলছিল, সেগুলোকেও টার্গেটে নেওয়া হয়েছে।

জাতিসংঘের এ রকম পদক্ষেপের জবাবে কঠিন প্রতিক্রিয়া পাঠিয়েছে উত্তর কোরিয়া। নতুন সে সব নিষেধাজ্ঞার কড়া সমালোচনা করে বলা হয়, এটা তাদের সার্বভৌমত্বের ওপর হামলার সমান। উত্তর কোরিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী রাই ইয়ং হো আসিয়ানের আঞ্চলিক ফোরামে জানান, যুক্তরাষ্ট্রের চলমান হুমকির পরিপ্রেক্ষিতে আত্মরক্ষার স্বার্থে পারমাণবিক অস্ত্রে সক্ষমতা অর্জন উত্তর কোরিয়ার বৈধ অধিকার।

উত্তর কোরিয়া তাদের পারমাণবিক পরীক্ষা-নিরীক্ষা বন্ধ করবে না সেদিকে ইঙ্গিত দিয়ে তিনি বলেন, ‘আমরা কোনো অবস্থাতেই পারমাণবিক অস্ত্র ও দূরপাল্লার রকেট নিয়ে কোনো আলোচনার টেবিলে বসছি না। যুক্তরাষ্ট্রকে কঠিন শিক্ষা দেওয়া হবে, যদি তারা উত্তর কোরিয়ার বিরুদ্ধে সামরিক শক্তি ব্যবহারের চেষ্টা চালায়।’

প্রতিক্ষণ/এডি/অন

আরো সংবাদঃ

মন্তব্য করুনঃ

পাঠকের মন্তব্য



আর্কাইভ

অক্টোবর ২০১৭
শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
« সেপ্টেম্বর    
 
১০১১১২১৩
১৪১৫১৬১৭১৮১৯২০
২১২২২৩২৪২৫২৬২৭
২৮২৯৩০৩১  
0cc0