অন্তর্মুখী মানুষদের জন্য আদর্শ পেশা

প্রথম প্রকাশঃ এপ্রিল ২৭, ২০১৬ সময়ঃ ৮:১৬ অপরাহ্ণ.. সর্বশেষ সম্পাদনাঃ ৮:১৬ অপরাহ্ণ

প্রতিক্ষণ ডেস্কঃ

psychology-of-introverted-employees

বর্তমান যুগটাই যোগাযোগের যুগ। “কথা ছাড়া কি কাজ হয়?” এর যুগ। এই যুগে আপনি যদি চুপচাপ হন, অন্তর্মুখী হন তাহলে নিশ্চয়ই নানান সমস্যায় পড়ছেন। যে সমস্যা আপনার শিক্ষা জীবন থেকে কর্মজীবন পর্যন্ত বিস্তৃত হয়েছে। এবং আপনার কর্মজীবন নানানভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে।

কিন্তু যত যাই হোক, অন্তর্মুখী মানুষের জন্যও কিন্তু আছে এমন কিছু পেশা, যেগুলো একজন অন্তর্মুখী মানুষ যদি পেশা হিসেবে বাছাই করেন, তবে সফল হওয়ার সম্ভাবনা রাখেন।

আসুন দেখে নিই অন্তর্মুখী মানুষদের উপযুক্ত ৫টি পেশা।

১. সাহিত্যিক- অন্তর্মুখী, সৃজনশীল মানুষের জন্য আদর্শ পেশা হচ্ছে সাহিত্য সাধনা। খাতা-কলম নিয়ে গল্প কিংবা কবিতার প্লটকে জীবন দান করার কাজটি করেন সাহিত্যিকেরা। এতে খুব বেশি জনসংযোগের প্রয়োজন পড়ে না।

২. ভিডিও গেম আর্টিস্ট – ভিডিও গেমের বিভিন্ন চরিত্র ও দৃশ্য বাস্তবতার সঙ্গে তুলনা করে ভার্চুয়াল জগতে স্থাপন করার কাজ এটি। এ কাজ অন্তর্মুখী ব্যক্তিদের সৃজনশীলতা প্রকাশের দারুণ মাধ্যম।

৩. শিল্পী – শিল্পীরা রং-তুলি, ভাস্কর্য কিংবা পেন্সিল নিয়ে তাদের দিন পার করে দিতে পারেন। এ কাজে অন্যদের সঙ্গে যোগাযোগ ও কথাবার্তার তুলনায় নিজের সৃজনশীলতার বিকাশই গুরুত্ব পায়। আর এ ধরনের পেশায় প্রচুর অর্থও রোজগার করা যায়।

৪. ওয়েব ডেভলপার – ওয়েবসাইট তৈরি করা হতে পারে অন্তর্মুখী ব্যক্তিদের অন্যতম প্রিয় পেশা। এ কাজে সারাক্ষণ কোনো ব্যক্তির সংস্পর্শে থাকতে হয় না। নানা সৃজনশীলতা ব্যবহার করে ওয়েবসাইট তৈরি করতে হয়। এ কারণে অন্তর্মুখী ব্যক্তিদের জন্য এটি অন্যতম জনপ্রিয় পেশা।

৫. বনকর্মী – কোনো পার্কে কিংবা বনভূমিতে কাজ করা অন্তর্মুখী ব্যক্তিদের জন্য হতে পারে খুবই আকর্ষণীয়। তারা প্রকৃতির মাঝে কাজ করে আনন্দ পেতে পারেন। এ কাজ মানুষের তুলনায় গাছপালা ও প্রাকৃতিক পরিবেশ যাদের ভালো লাগে তাদের জন্য একেবারে উপযুক্ত।

 

প্রতিক্ষণ/এডি/সাদিয়া

আরো সংবাদঃ

মন্তব্য করুনঃ

পাঠকের মন্তব্য

20G