আকর্ষনীয় ব্যক্তিত্বসম্পন্ন নারীর কৌশল

প্রথম প্রকাশঃ মার্চ ১২, ২০১৫ সময়ঃ ১২:৫৭ অপরাহ্ণ.. সর্বশেষ সম্পাদনাঃ ১:১৩ অপরাহ্ণ

তাজিন আক্তার, প্রতিক্ষণ ডটকম:

সৌন্দর্য নয়, বরং ব্যক্তিত্বই একজন নারীর সবচাইতে মূল্যবান সম্পদ। শুধুমাত্র ব্যক্তিত্ব দিয়েই একজন নারী সকলের মন জয় করে নিতে পারেন খুব সহজেই। যদি তিনি নজরকাড়া রূপসী নাও হন, তবুও। একজন ব্যক্তিত্বসম্পন্না নারী সব সময়েই অনেক বেশি আকর্ষনীয়। আর তাই ব্যক্তিত্বসম্পন্না নারী হয়ে ওঠার স্বপ্ন সব নারীরই কম বেশি থাকে।

কীভাবে হয়ে উঠবেন একজন ব্যক্তিত্বসম্পন্না নারী ? জেনে নিন ব্যক্তিত্বসম্পন্না নারী হয়ে ওঠার ৬ টি সহজ কৌশল।

life styleসঠিক পোশাক নির্বাচন

ব্যক্তিত্ব অনেকাংশেই পোশাকের উপর নির্ভর করে। নিজেদের দেহের গড়ন ও বয়সের সাথে বেমানান পোশাক পরলে ব্যক্তিত্ব ক্ষুণ্ণ হয় এবং দেখতে দৃষ্টিকটু দেখায়। আবার কোন যায়গায় কেমন পোশাক পরলে মানাবে সেটাও মাথায় রাখা উচিত। নিজের সাথে মানানসই শালীন পোশাকে নারীর ব্যক্তিত্ব আরো বেশি ফুটে ওঠে।

আত্মবিশ্বাস

আত্মবিশ্বাস একজন মানুষকে খুব সহজেই ব্যক্তিত্ববান বানিয়ে তোলে। যে কোনো কাজে নিজের আত্মবিশ্বাস বজায় রাখতে পারলে সেটা কথাবার্তা ও ব্যক্তিত্বে ফুটে ওঠে। আত্মবিশ্বাস কম থাকলে একজন মানুষ কখনোই ব্যক্তিত্বসম্পন্ন হয়ে উঠতে পারে না। তাই নারীদের উচিত নিজেদের আত্মবিশ্বাস কম থাকলে সেটাকে বাড়িয়ে তোলা। তাহলে অনায়েসেই একজন নারী হয়ে উঠতে পারবেন ব্যক্তিত্বসম্পন্না।

সামাজিকতা পালন

যে কোনো সামাজিক অনুষ্ঠানে নিজেকে গুটিয়ে না রেখে সামাজিকতা পালন করুন। মানুষজনের সাথে পরিচিত হয়ে নিন, life style2কুশলাদি জিজ্ঞাসা করুন এবং অন্যান্য সামাজিক দ্বায়িত্ব পালন করার চেষ্টা করুন। সামাজিকতা পালন না করে নিজেকে গুটিয়ে রাখলে আপনার ব্যক্তিত্ব প্রকাশ পাবে না এবং নতুন নতুন মানুষদেরকে জানার সুযোগ হারাবেন আপনি। তাই ব্যক্তিত্ব সম্পন্না নারী হতে চাইলে সামাজিকতা বাড়িয়ে তুলুন।

ইতিবাচক চিন্তা ভাবনাlife style 3

একজন নেতিবাচক চিন্তার মানুষ সারাক্ষণই হতাশা, দুঃখ ও বিষণ্ণতায় ভোগে যা একজন মানুষের ব্যক্তিত্বকে ক্ষুন্ন করে। ব্যক্তিত্বসম্পন্না নারী হয়ে উঠতে চাইলে নিজের নেতিবাচক মনোভাব কে দূর করে চেষ্টা করুন সকল পরিস্থিতিতেই ইতিবাচক চিন্তা করার।

সুন্দর বাচনভঙ্গি

একজন নারীর বাচনভঙ্গির মাধ্যমে তার ব্যক্তিত্ব ফুটে ওঠে। আর তাই ব্যক্তিত্বসম্পন্না নারী হতে চাইলে বাচন ভঙ্গির দিকে মনোযোগ দেয়া উচিত সকল নারীরই। সুন্দর করে গুছিয়ে কথা বলা, স্পষ্ট উচ্চারন, কথা বলার সময় চোখের দিকে তাকিয়ে কথা বলা এবং ভাবপ্রকাশের দিকে লক্ষ্য রাখা উচিত নারীদের।

কথা ও কাজে মিল রাখুন

ব্যক্তিত্ববান মানুষের অন্যতম একটি বৈশিষ্ট্য হলো কথা ও কাজের মিল থাকা। তাই একজন নারী নিজেকে ব্যক্তিত্বসম্পন্না হিসেবে সবার কাছে মেলে ধরতে চাইলে তার কথা ও কাজের সামঞ্জস্য থাকতে হবে। যে কাজটি আপনার পক্ষে করা সম্ভব না সেটার ক্ষেত্রে কখনই কাউকে আশ্বাস দেয়া উচিত না। সব সময় চেষ্টা করুন প্রতিজ্ঞাবদ্ধ হলে সেটা ভঙ্গ না করতে।

 

তাজিন/প্রতিক্ষণ/এডি/আরেফিন

আরো সংবাদঃ

মন্তব্য করুনঃ

পাঠকের মন্তব্য

0cc0