চবিতে প্রক্টর কার্যালয় ভাঙচুর করেছে ছাত্রলীগ কর্মীরা

প্রথম প্রকাশঃ ফেব্রুয়ারি ২০, ২০১৮ সময়ঃ ১০:০৭ অপরাহ্ণ.. সর্বশেষ সম্পাদনাঃ ১১:০২ পূর্বাহ্ণ

প্রক্টরের পদত্যাগ দাবিতে লাগাতার অবরোধের ডাক দিয়ে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের (চবি) প্রক্টর কার্যালয়, বিশ্ববিদ্যালয় প্রেস, শেখ কামাল জিমেনেশিয়াম ও বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিবহন দফতরের  গাড়িসহ ১৩টি গাড়ি ভাঙচুর করে ছাত্রলীগের একাংশের নেতাকর্মীরা।

মঙ্গলবার বিকেলে সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দিন অনুসারী ছাত্রলীগের তিন কর্মীর নেতৃত্বে এ হামলা চালানো হয় বলে বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন সূত্র থেকে জানা গেছে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, প্রক্টরের পদত্যাগ দাবিতে মঙ্গলবার দুপুরে প্রধান ফটক অবরোধ করার পর সেখানে পুলিশ লাঠিচার্জ করলে ছাত্রলীগের এই একাংশের কর্মীরা এলোপাতাড়ি পাথর ও হাতুড়ি দিয়ে প্রক্টরের জানালার কাচ ও অফিসের সরঞ্জাম ভাঙতে শুরু করে। হামলার সময় প্রক্টর আলী আজগর চৌধুরীসহ অন্যান্য শিক্ষকরা ঘটনাস্থলে উপস্থিত ছিলেন। এ সময় কার্যালয়ের সামনে দাঁড়িয়ে থাকা প্রক্টর ও সময় টেলিভিশনের গাড়িও ভাঙচুর করা হয়।

এ বিষয়ে চবি প্রক্টর আলী আজগর চৌধুরী বলেন, ‘পদত্যাগের যৌক্তিক কোনো কারণ থাকলে আমি পদত্যাগ করবো। হল থেকে অস্ত্র উদ্ধার পদত্যাগের কোনো যৌক্তিক কারণ হতে পারে না’।

এ ঘটনায় প্রাথমিকভাবে তিনজনকে শনাক্ত করা হয়েছে বলেও জানিয়েছেন তিনি। তারা হলেন- লোক প্রশাসন বিভাগের ২০১১-১২ শিক্ষাবর্ষের সাইদুল ইসলাম সাঈদ, ২০১৪-১৫ শিক্ষাবর্ষের লোকমান হোসাইন ও কনক সাহা জয়।

ইতোমধ্যে হামলাকারীদের চিহ্নিত করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন প্রক্টর আলী আজগর চৌধুরী। এছাড়া হামলা করে যাওয়ার সময় ঐ তিন ছাত্রলীগ কর্মীকে দেখেছে বলে জানিয়েছেন প্রত্যক্ষদর্শীরা।

উল্লেখ্য, সোমবার রাতে বিশ্ববিদ্যালয়ের (চবি) ছাত্রদের দুইটি আবাসিক হলে তল্লাশি চালিয়ে পরিত্যক্ত অবস্থায় দুই এলজিসহ বেশ কিছু দেশীয় অস্ত্র উদ্ধার করেছে পুলিশ।

প্রতিক্ষণ/এডি/শাআ

আরো সংবাদঃ

মন্তব্য করুনঃ

পাঠকের মন্তব্য

0cc0