রাবিতে ছাত্রদল নেতাকে বেধড়ক মারধর

প্রথম প্রকাশঃ মার্চ ১, ২০১৫ সময়ঃ ৭:১৮ অপরাহ্ণ.. সর্বশেষ সম্পাদনাঃ ৭:১৮ অপরাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক, প্রতিক্ষণ ডটকম:

ru27460_30907রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় (রাবি) শাওন নামে এক ছাত্রদল নেতা, তার বন্ধু সজীব ও তার এক সহযোগীকে বেধড়ক পিটিয়ে অাহত করেছে ছাত্রলীগের নেতারা। পরে ছাত্রী উত্যেক্তের অভিযোগ তুলে তাদের পুলিশের কাছে হস্তান্তর করেছেন ছাত্রলীগ নেতারা।

আহত শাওন বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রদলের সাবেক আহবায়ক কমিটির সদস্য ও ফিন্যান্স এন্ড ব্যাংকিং বিভাগের মাস্টার্সের শিক্ষার্থী।

রোববার দুপুরে বিশ্ববিদ্যালয়ের টুকিটাকি চত্বরে ছাত্রলীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক কিবরিয়া, সাংগঠনিক সম্পাদক ফয়সাল আহামেদ রুনু কাওছার আহামেদ কৌশিক এ ঘটনা ঘটিয়েছে বলে জানা গেছে।

জানা যায়, দুপুরে টুকিটাকি চত্বরে শাওন, একই বিভাগের শিক্ষার্থী সজীব ও অপর একজন বসে চা খাচ্ছিল। ছাত্রলীগের ফয়সাল আহাম্দে রুনু তাদেরকে ডেকে অন্য দোকানে নিয়ে যায়। এসময় ফয়সাল আহামেদ রুনুর নেতৃত্বে  কিবরিয়া, কাওছার আহামেদ কৌশিক তার সাথে খারাপ আচরণ করতে থাকে। এতে তার বন্ধু সজীব (ছাত্রলীগ কর্মী) বলেন, আমিও তো ছাত্রলীগ করি আমার বন্ধুর সাথে তোদের ভালো ব্যবহার করা উচিত। এতে তারা কয়েকজন মিলে তাদের উভয়কে উপর্যুপুরী কিল, ঘুষি, লাথি মেরে মুখ থেতলে দেয়। এরপর তদের দুইজনকেই পুলিশের কাছে সোপর্দ করা হয়।

এ ব্যাপারে ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ফয়সাল আহমেদ রুনু বলেন, ছাত্রদলের কয়েকজন নেতাকর্মী দুপুরে টুকিটাকি চত্বরের আনোয়ার ভাইয়ের খাবারের দোকানে বসে আড্ডা দিচ্ছিল এবং পাশেই থাকা কয়েকজন ছাত্রীকে উত্যেক্ত করছিলো। তাদের সাথে কথা বলার জন্য আমরা ডাকি। কিন্তু তারা আমাদের সাথে খারাপ আচরণ করলে তিনজনকে পুলিশে দেয়া হয়। তাদের সঙ্গে থাকা অপর দুজন পালিয়ে যায় বলেও জানান তিনি।

প্রাথমিক অবস্থায় বিশ্ববিদ্যালয় মেডিকেলে নিয়ে গেলে তাদের অবস্থা আরো অবনতি হয়। পরে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হসপাতালে তাদের (রামেকে) ভর্তি করা হয়।

এ ব্যাপারে বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি মিজানুর রহমান রানার সাথে মুঠোফোনে কয়েকবার যোগাযোগ করা হলে তিনি ফোন রিসিভ করেননি।

এ ব্যাপারে মতিহার থানার ওসি আব্দুর রউফের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি ফোন রিসিভ করেননি।

প্রতিক্ষণ/এডি/রেজা

আরো সংবাদঃ

মন্তব্য করুনঃ

পাঠকের মন্তব্য

20G