থার্টি ফার্স্ট নাইট-নিরাপত্তা আর সরকারের ভাবনা

প্রকাশঃ ডিসেম্বর ২৯, ২০২২ সময়ঃ ১২:৫৩ পূর্বাহ্ণ.. সর্বশেষ সম্পাদনাঃ ১২:৫৩ পূর্বাহ্ণ

বিশেষ প্রতিবেদন

২০২৩, নতুন একটি বছর। নতুন করে নতুন ভাবনা। আবারো সেই থার্টি ফার্স্ট নাইট দরজায় কড়া নাড়ছে। দিনের হিসেবে আর মাত্র ২ দিন বাকী থার্টি ফার্স্ট নাইটের। আবারো সেই নিরাপত্তার প্রশ্ন, কারণ থার্টি ফার্স্ট নাইট মানেই তো পুরো রাজধানী জুড়ে আনন্দ উদযাপনের নামে অতি বাড়াবাড়ি হয়ে থাকে।

সেই বাড়াবাড়ির উদযাপনের জন্য ইংরেজি নববর্ষকে স্বাগত জানাতে প্রস্তুতি নিচ্ছেন অনেকে। ৩১ ডিসেম্বর চলতি বছরের শেষ সূর্যাস্তের পর রাজধানীসহ সারাদেশে ২০২৩ সালের আগমনের প্রথম প্রহর রাত ১২টার পর নতুন বছর বরণে শুরু হবে রাতভর আনন্দ আয়োজন।

আতশবাজি, হই-হুল্লোড় আর আলোর ঝলকানিতে ছেয়ে যাবে বিশ্বের অন্যান্য দেশের মতো রাজধানীর ঢাকার আকাশ। করোনা মহামারীর কারণে গত বছরগুলোতে থার্টিফার্স্ট নাইটের এমন আয়োজন অনেকটা প্রাণহীন হলেও এবার তাতে প্রাণ ফিরবে এমন প্রত্যাশা করছেন তারকা হোটেলের সংশ্লিষ্টরা।

তরে বরাবরের মতো নিরাপত্তার প্রশ্ন নিয়ে সরকার সজাগ। থার্টিফার্স্ট নাইট নিয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেছেন, থার্টিফার্স্ট নাইটকে ঘিরে কঠোর নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। মাদকের অপব্যবহার রোধে আগামী ৩১ ডিসেম্বর সন্ধ্যা ৬টা থেকে ১ জানুয়ারি সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত ২৪ ঘণ্টা বার বন্ধ থাকবে। এছাড়া, রাস্তায় কোনো প্রকার কনসার্টের আয়োজন করতে দেওয়া হচ্ছে না।

থার্টিফার্স্ট নাইট নিয়ে বিশেষ আয়োজনের প্রস্তুতি চলছে রাজধানীর তারকা হোটেলগুলোতে। ইতিমধ্যে অনুষ্ঠানের জন্য ভাড়া দেওয়া হয়েছে হোটেলের হল, বলরুম। হোটেলগুলোতে সন্ধ্যা থেকে ভোর রাত পর্যন্ত পুল সাইট লাইভ মিউজিক, বারবিকিউ ককটেল পার্টি, ডিজে ড্যান্সপার্টির আয়োজন করা হয়েছে।

হোটেল প্যানপ্যাসিফিক সোনারগাঁওয়ের রিজার্ভেশন থেকে জানানো হয়, থার্টিফার্স্ট উপলক্ষে পুল ক্যাফে, ক্যাফে বাজার এবং বারে থাকছে বিশেষ আয়োজন। পুল ক্যাফেতে থাকছে বারবিকিউ ডিনার। বুকিং ফি ৬ হাজার টাকা। চলবে সন্ধ্যা ৬টা থেকে মাঝরাত পর্যন্ত। এক্ষেত্রে বিশেষ ছাড় হিসেবে ক্রেডিট কার্ডে একটি কিনলে আরেকটি ফ্রি অফার। এছাড়া থার্টিফার্স্টের অনুষ্ঠান চলবে রাত ৮টা থেকে ২টা পর্যন্ত। থাকবে স্পেশাল ডিজে পার্টির আয়োজন।

হোটেল ইন্টারকন্টিনেন্টালে রিজার্ভেশন থেকে জানানো হয়, থার্টিফাস্ট নাইট উপলক্ষে ইতিমধ্যে হোটেলের রুম বুকিং এবং রিজার্ভেশন শুরু হয়ে গেছে। আগামী ২৭ ডিসেম্বর পর্যন্ত বুকিং চলবে। এখানকার অধিকাংশ রুমই ভাড়া হয়ে গেছে। তিনি বলেন, এই তারকা হোটেলটিতে কোনো ডিজে পার্টির আয়োজন থাকছে না। তবে থার্টিফাস্ট কাউন্টডাউন, পুল সাইট লাইভ মিউজিক শো, স্পেশাল বারবিকিউসহ নানা আয়োজন থাকছে। সন্ধ্যা সাড়ে ৭টা থেকে রাত ১২টা পর্যন্ত চলবে কাউন্টডাউন, লাইভ মিউজিক।

ঢাকা ওয়েস্টিন হোটেলের রিজার্ভেশন রিজার্ভেশন থেকে জানানো হয়, হোটেলটিতে মোট ২৬৬টি রুম রয়েছে। থার্টিফাস্ট উপলক্ষে কাপল রুম অফার থাকছে ১২ হাজার ৯৯৯ টাকায়। সঙ্গে ফ্রি ব্রেকফাস্ট। এছাড়া জুনিয়র স্যুইট কক্ষের বুকিং ফি ৪৫ হাজার টাকা। এক্সিকিউটিভ স্যুইট রুম ৬০ হাজার টাকা। ৭ থেকে ৮ জনের জন্য রেসিডেন্ট স্যুইট ২ লাখ টাকা। এছাড়া থাকছে ডিজে, লাইভ মিউজিক, নিউইয়ার স্পেশাল ব্রান্স, খ্রিস্টমাস ব্রান্স। বলরুমে ডিজে পার্টি চলবে সন্ধ্যা থেকে ভোর পর্যন্ত। পাশাপাশি ভবনের ২৩ তলায় ইতালিয়ান রেস্টুরেন্টে থাকবে স্পেশাল বুফে ডিনার। এক্ষেত্রে জনপ্রতি রেজিস্ট্রেশন ফি ১২ হাজার ৫শ’ টাকা। পাশাপাশি ৬টি স্পেশাল প্যাকেজ (খাবার মেনু) থাকবে। টিকিট সংখ্যা সীমিত থাকায় ইতিমধ্যে অধিকাংশ টিকিট বিক্রি হয়ে গেছে। আগামী ২৬ ডিসেম্বর পর্যন্ত অনলাইনে বা ই-মেলের মাধ্যমে রুম বুকিং এবং টিকিট কনফার্ম করা যাবে। প্যাকেজ অনুযায়ী হোটেলে ১৬ হাজার টাকার মধ্যে একটি রুম এবং ককটেল পার্টিতে অংশগ্রহণের সুযোগ থাকবে। আমন্ত্রিত অতিথিদের বাইরে কেউ অংশ নিতে পারবেন না।

হোটেল লা মেরিডিয়ান রিজার্ভেশন থেকে জানানো হয়, রেস্টুরেন্টে ব্যুফে ডিনারে বাই ওয়ান গেট ওয়ান অফার থাকছে। মূল্য আসবে ৮ হাজার ৯শ ৯৯ টাকা। এছাড়া রয়েছে স্পেশাল ফুড, ডিনার। রাত ৯টা থেকে ৩টা ডিজে পর্যন্ত পার্টি চলবে। কাউন্টডাউনের সঙ্গে নিউইয়ার উদ্যাপনের বিশেষ ব্যবস্থা থাকছে। লাইভ মিউজিশিয়ান, ডিজে পার্টি থাকছে। এছাড়া ৬ হাজার এবং ১০ হাজার টাকায় দু’টি সিঙ্গেল প্যাকেজ রয়েছে। ১০ হাজার টাকার অফারটি হচ্ছে ভিআইপি। এছাড়া কাপলদের জন্য রেস্ট হাউসের ভাড়া ১৫ হাজার টাকা। ব্রেকফাস্ট, ডিনার এবং ডিজে এবং রুমসহ ৩০ হাজার টাকায় থাকছে স্পেশাল অফার। এছাড়া ১ লাখ ৩০ হাজার টাকায় রয়েছে ভিআইপি স্যুইট রুম অফার। এক্ষেত্রে ডিজে, ব্যুফে, সফট ড্রিঙ্কসসহ নানা অফার রয়েছে।

ডিএমপি’র মিডিয়া ও পাবলিক রিলেশন্স বিভাগের উপ-পুলিশ কমিশনার (ডিসি) ফারুক হোসেন বলেন, ঢাকার পাঁচ তারকা হোটেলসহ বিভিন্ন হোটেলগুলোর বার এ বছর বন্ধ থাকবে। তারকা হোটেলগুলোকে সেই নির্দেশনা মেনে চলতে হবে। রাতটি ঘিরে নিরাপত্তার চাদরে ঢাকা থাকবে রাজধানী। পটকা-আতশবাজিও ফোটানো যাবে না। নিষিদ্ধ থাকছে প্রকাশ্য অস্ত্রবহন। বেপরোয়া রেসিং নিয়ন্ত্রণে মোড়ে মোড়ে থাকবে চেকপোস্ট। একইভাবে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এলাকায়ও প্রবেশে কড়াকড়ি থাকবে।

রাজধানীর উল্লেখিত তারকা হোটল ছাড়াও অন্যান্য তারকা হোটেলগুলো থার্টিফার্স্ট নাইট ঘিরে প্রস্তুতি নিচ্ছে। আবার অনেক ইভেন্ট ম্যানেজমেন্ট কোম্পানিগুলো তারকা হোটেল ও পর্যটন কেন্দ্রগুলোতে অনুষ্ঠানের জন্য ভাড়া দেওয়া হয়েছে হোটেলের হল, বলরুম। সন্ধ্যা থেকে ভোর রাত পর্যন্ত পুল সাইট লাইভ মিউজিক, বারবিকিউ ককটেল পার্টি, ডিজে ড্যান্সপার্টিসহ নানা আয়োজন করা হয়েছে।

এছাড়াও দেশের পর্যটন কেন্দ্রগুলোতে প্রস্তুতি চলছে। ইংরেজি নববর্ষ বরণে প্রতি বছর পর্যটন শহর কক্সবাজারে লাখো পর্যটকের সমাগম হয়। এবারও আশানুরূপ পর্যটক আশা করছেন সংশ্লিষ্টরা। তারা জানিয়েছেন, এরই মধ্যে কক্সবাজারের চার শতাধিক হোটেল-মোটেল ও গেস্ট হাউজে অর্ধেকেরও বেশি কক্ষ বুকিং হয়ে গেছে। একই অবস্থা সিলেট চট্টগ্রামসহ অন্যান্য পর্যটন স্পটেও।

আরো সংবাদঃ

মন্তব্য করুনঃ

পাঠকের মন্তব্য



আর্কাইভ

June 2024
S S M T W T F
1234567
891011121314
15161718192021
22232425262728
2930  
20G