সবুজের সমারোহে নীলগিরি

প্রকাশঃ সেপ্টেম্বর ৩, ২০১৫ সময়ঃ ৬:৫৪ অপরাহ্ণ.. সর্বশেষ সম্পাদনাঃ ৯:০৬ পূর্বাহ্ণ

ফারজানা ওয়াহিদ

nilgiri

প্রাকৃতিক সৌন্দর্য্যের অবারিত সবুজের সমারোহ এই নীলগিরি। দুচোখ যেদিকে যাবে শুধু সবুজ আর সবুজ। এখানে মেঘ ছুঁয়ে দাঁড়িয়ে আছে বহু পাহাড়। খুব কাছ থেকে মেঘ দেখার ইচ্ছা যাদের আছে তারা ঘুরে আসতে পারেন বাংলাদেশের পাহাড়ি কন্যা বান্দরবানের নীলগিরিতে।

বাংলাদেশের নীলগিরিতেই পর্যটন কেন্দ্র গুলো অন্যান্য পর্যটন কেন্দ্র থেকে সবচেয়ে উঁচুতে। এ পর্যটন কেন্দ্রের উচ্চতা প্রায় ৩ হাজার ফুট। এটি বান্দরবান জেলার থানছি উপজেলায় অবস্থিত। বান্দরবান জেলা সদর থেকে ৪৫ কিলোমিটার দক্ষিণ পূর্ব দিকে অবস্থিত এই পর্যটন কেন্দ্রের অবস্থান। এ পর্বতের পাশেই রয়েছে বাংলাদেশের সবচেয়ে অবহেলিত উপজাতী সম্প্রদায়।এই উপজাতি সম্প্রদায়ের নাম  ম্রো। এদের  বিচিত্র সংস্কৃতি দেখার মত।

বর্ষা মৌসুমে নীলগিরি পর্যটন কেন্দ্র থেকে মেঘ ছোঁয়ার দূর্লভ সুযোগ রয়েছে। শুষ্ক মৌসুমে নীলগিরি থেকে সূর্যোদয় ও সূর্যাস্ত দেখা যায়। বান্দরবানের সবচেয়ে সুন্দর ও আধুনিক পর্যটন কেন্দ্র এটি।  সেনা তত্ত্বাবধানে পরিচালিত হয় এই পর্যটন কেন্দ্র গুলি। এর পাশেই রয়েছে একটি সেনা ক্যাম্প। নিরিবিলিতে স্বপরিবারে কয়েক দিন কাটাতে নীলগিরি একটি আর্দশ জায়গা।

nilgiri1

পর্যটকদের নীলগিরি যেতে হলে বান্দরবান জেলা সদরের রুমা জীপ ষ্টেশন থেকে থানছিগামী জীপ অথবা বাসে করে নীলগিরি পর্যটন কেন্দ্রে যাওয়া যায়। বান্দরবান জীপ ষ্টেশন থেকে জীপ, ল্যান্ড রোভার, ল্যান্ড ক্রুজারসহ অন্যান্য হালকা গাড়ী ভাড়ায় পাওয়া যায়। নীলগিরি যাওয়ার পথে সেনা চেকপোষ্টে পর্যটকদের নাম ও ঠিকানা লিপিবদ্ধ করতে হবে। বান্দরবান জেলা সদর থেকে সাধারণত বিকেল ৫ টার পর নীলগিরির উদ্দেশে কোন গাড়ী যেতে দেয়া হয় না।  সেনাবাহিনী কর্তৃক নির্ধারিত আসা-যাওয়া-ছোট জীপ ভাড়া (৫সিট) ২৩০০ টাকা এবং বড় জীপ (৮সিট) ২৮০০ টাকা।

নীলগিরি পর্যটন কেন্দ্র বান্দরবান জেলা সদর থেকে দিনে গিয়ে দিনে ফিরে আসা যায়। এ ছাড়া নীলগিরি পর্যটন কেন্দ্র রাত্রি যাপনের জন্য বান্দরবান সদর সেনা রিজিয়নে বুকিং দেয়া যায়। তাছাড়া নীলগিরি পর্যটনে গিয়ে সরাসরি বুকিং করা যায়। বান্দরবান জেলা সদর থেকে নীলগিরি পর্যটন কেন্দ্রের যোগাযোগ ব্যবস্থা উন্নত হওয়ায় অধিকাংশ পর্যটক দিনে গিয়ে দিনেই ফিরে আসেন।

সাধারণ পর্যটকের জন্য নীলগিরি কর্টেজে বুকিং ব্যবস্থা রয়েছে। বুকিং এর ঠিকানাঃ

পেট্রো এভিয়েশন

৬৯/২, লেভেল-৪,রোড-৭/এ, ধানমন্ডি, ঢাকা।

ফোন:-মনতোষ মজুমদারঃ ০১৭৩০০৪৩৬০৩ এবং হাসান সাহেদঃ ০১৭৩০০৪৩৬০৩।

কর্টেজ ভাড়াঃ

গিরি মারমেট: ৭৫০০ টাকা। (৮-১০ জন থাকতে পারবে)।

মেঘদূত: ৬৫০০ টাকা। (৮-১০ জন থাকতে পারবে)।

নীলাঙ্গনা: ৫৫০০ টাকা। (৪-৬ জন থাকতে পারবে ২ রুমে) ,কাপলরা ২৭৫০টাকায় ১ রুম ভাড়া পাবেন।

প্রতিক্ষন/এডমি/এফজে

আরো সংবাদঃ

মন্তব্য করুনঃ

পাঠকের মন্তব্য



আর্কাইভ

June 2024
S S M T W T F
1234567
891011121314
15161718192021
22232425262728
2930  
20G