সিংহের কবল থেকে রক্ষা

প্রকাশঃ আগস্ট ১৬, ২০১৬ সময়ঃ ১:০৩ অপরাহ্ণ.. সর্বশেষ সম্পাদনাঃ ১:০৪ অপরাহ্ণ

Cp1dZ2QXgAATMKa

যুক্তরাষ্ট্রের উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলীয় ইদাহো অঙ্গরাজ্যে সিংহের কবল থেকে বেঁচে ফিরেছে এক শিশু। পরিবারের লোকজন টের পেয়ে পশুরাজের থাবা থেকে মেয়েটিকে উদ্ধার করে।

গত শুক্রবার ইদাহোর পূর্বাঞ্চলীয় একটি পাহাড়ি বনভোজন কেন্দ্রে ঐ ঘটনা ঘটে। ঐ মেয়ে ও তার পরিবারের সদস্যরা সেখানে বেড়াতে গিয়েছিল। মেয়েটির বয়স চার বছর।

ইদাহো রাজ্যের বন্যপ্রাণী বিষয়ক ব্যবস্থাপক গ্রেগ লজিন্সিকি বলেন, মেয়েটি আক্ষরিক অর্থেই সিংহের মুখে চলে গিয়েছিল। তাৎক্ষণিকভাবে তার মা ও পরিবারের সদস্যরা সিংহটিকে তাড়া করে। এতে সিংহটি মেয়েটিকে ছেড়ে দিয়ে পালিয়ে যায়। অবশ্য পরে স্থানীয় প্রশাসন খুঁজে বের করে সিংহটিকে মেরে ফেলেছে।

মেয়েটির পরিবারের সদস্যদের বরাত দিয়ে বলা হয়, ঐ দিন সন্ধ্যায় মেয়েটি ও তার ভাইবোনেরা তাঁবুরে পাশে শুয়ে পড়েছিল। এমন সময় গুটিগুটি পায়ে সিংহটি এসে হাজির হয়। সেটি দ্রুত বাচ্চা মেয়েটির ওপর ঝাঁপিয়ে পড়ে। তারপর তাকে টেনেহিঁচড়ে জঙ্গলের দিকে নেওয়ার চেষ্টা করে।

"A mountain lion (Felis concolor), also known as a puma, is a stealthy visitor to the deserts. They are revered as the phantoms of the desert. Phantoms for while their tracks and remains of kills are visible, they are rarely if ever seen by humans or their prey. They will prefer to spend the days in areas of thick vegetation before striking out at night to thrash into a mule deer, quickly gashing its throat for the kill. The lion will eat its due, carefully burying the remaining carcass and its precious meat with vegetation to return for several days to satiate itself. Solitary roamers, they require a great deal of space to move about in and the encroaching human population is forcing them to co-habitate in closer quarters. , (Photo by Francis Apesteguy/Getty Images)"

গ্রেগ লজিন্সিকি বলেন, ঐ ঘটনার সময় মেয়েটির ভাইবোনেরা চিৎকার করে ওঠে। এতে তাদের বাবা-মা ও পরিবারের বয়স্ক ব্যক্তিরা টের পায়। তারা দ্রুত সিংহটিকে তাড়া করে মেয়েটিকে উদ্ধার করে। এটি অনেক প্রশসনীয় কাজ।

ঐ মেয়ে ও তার পরিবারের সদস্যদের নাম এখনো প্রকাশ করা হয়নি।

ইদাহোর বন্যপ্রাণী বিষয়ক ব্যবস্থাপনা বিভাগ জানায়, সাধারণত এ ধরনের সিংহ মাংসাশী হয় না। গত এক শ বছর ধরে পাহাড়ি সিংহের হাতে একজনেরও প্রাণহানি ঘটেনি। সর্বশেষ ২০১১ সালে একটি ছেলেকে পাহাড়ি সিংহ তাড়া করেছিল। সূত্র : হাফিংটন পোস্ট।

প্রতিক্ষণ/এডি/একে

=====

আরো সংবাদঃ

মন্তব্য করুনঃ

পাঠকের মন্তব্য



আর্কাইভ

February 2024
S S M T W T F
 12
3456789
10111213141516
17181920212223
242526272829  
20G