২৫ ডিসেম্বর আজ বড়দিন

প্রকাশঃ ডিসেম্বর ২৫, ২০১৬ সময়ঃ ১১:৩৯ পূর্বাহ্ণ.. সর্বশেষ সম্পাদনাঃ ৮:৪৮ অপরাহ্ণ

cristmas-day2আজ ২৫ ডিসেম্বর, এদিন যিশুখ্রিস্টের জন্মদিন,শুভ বড়দিন।। সেজন্য খ্রিস্ট ধর্মাবলম্বীদের কাছে দিনটির গুরুত্ব বিবেচনাতেই এটি আসলে বড়দিন হিসেবে পরিচিত। খ্রিস্টধর্মের প্রবর্তক যিশুখ্রিস্ট এইদিন বেথলেহেমে জন্মগ্রহণ করেছিলেন। খ্রিস্ট ধর্মাবলম্বীরা বিশ্বাস করেন, সৃষ্টিকর্তার মহিমা প্রচার এবং মানবজাতিকে সত্য ও ন্যায়ের পথে পরিচালিত করতে প্রভু যিশুর আগমন ঘটেছিল এ ধরায়। বিশ্বের অন্যান্য দেশের মতো বাংলাদেশের খ্রিস্ট ধর্মানুসারীরাও যথাযথ ধর্মীয় মর্যাদা, আচার, আনন্দ, উৎসব ও প্রার্থনার মধ্য দিয়ে দিনটি উদযাপন করবে।

আজ সরকারি ছুটি। বাংলাদেশ বেতার ও টেলিভিশন, বেসরকারি টিভি ও রেডিও দিবসের তাৎপর্য তুলে ধরে বিভিন্ন অনুষ্ঠান সম্প্রচার করছে। সংবাদপত্রগুলো বিশেষ ক্রোড়পত্র প্রকাশ করেছে। দিবসটি উপলক্ষে রাষ্ট্রপতি অ্যাডভোকেট আবদুল হামিদ, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়া, জাতীয় পার্টি-জেপিসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক ও ধর্মীয় সমপ্রদায় পৃথক বাণীতে খ্রিস্টান সমপ্রদায়ের মানুষকে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন।

দিনটি উপলক্ষে খ্রিস্ট ধর্মাবলম্বী পরিবারগুলোতে কেক তৈরি হচ্ছে, থাকছে বাড়িতে বাড়িতে বিশেষ খাবারের অয়োজনও। শুধু রাজধানী শহরে নয় সারা দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে বসেছে ধর্মীয় গানের আসর। ২৫ ডিসেম্বর বড়দিন হলেও বেশ কয়েকদিন আগে থেকেই এর উৎসবের আমেজ বিরাজ করছে খ্রিস্টান পরিবারগুলোতে। শুধু তাই নয়, সেজন্যই গত সপ্তাহে রাজধানীতে বাংলাদেশে খ্রিস্টধর্মের জন্য প্রথম বাঙালি ফাদার বেঞ্জামিন ডি রোজারিওকে বরণ করে নেওয়া হয়েছে। তিনিই বাংলাদেশের ইতিহাসে প্রথম এ গৌরব ও সম্মান অর্জন করলেন। তিনি মাসখানেক আগে বিশ্ব ক্যাথলিক খ্রিস্টান ধর্মযাজক পোপ ফ্রান্সিস কর্তৃক বাংলাদেশের জন্য সর্বোচ্চ খ্রিস্টধর্মীয় আধ্যাত্মিক নেতা ‘কার্ডিনাল’ হিসেবে নিয়োজিত হয়েছেন, যাঁকে এবারের বড়দিনের আগেই প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার উপস্থিতিতে বরণ করে অভিষিক্ত করা হয়েছে। কার্ডিনাল হলো খ্রিস্টিয় ধর্মের এমন একটি মর্যদাপূর্ণ পদবি যিনি ইচ্ছে করলে ভ্যাটিকানের জন্য পোপ হিসেবে নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতাও করতে পারবেন।

সব আচার অনুষ্ঠানই এখন সার্বজনীনতা লাভ করেছে। ধর্মে ধর্মে যত মতভেদ কিংবা পার্থক্যই থাকুক না কেন সব ধর্মেরই মূল বাণী একটিই।তেমনি আজো বাদ যাচ্ছে না খ্রিস্টানদের বড়দিন। আর তা হলো মানবপ্রেম, জীবপ্রেম, শান্তি, সাম্য ইত্যাদি। সেই শান্তিময় বাণী মানুষের মধ্যে ছড়িয়ে দেওয়ার জন্য বড়দিনে তাই গির্জায় গির্জায় সাজানো হয়েছে আলোকসজ্জা দিয়ে। সাজানো হয়েছে ক্রিসমাস ট্রি।

cristmas-day1বাচ্চাদের জন্য বিশেষ আকর্ষণ নিয়ে আসে বিশেষ আকর্ষণীয়ভাবে সজ্জিত ‘শান্তা ক্লজ’। কাজেই এবারেও বড়দিনে অনুষ্ঠানের সার্বজনীনতা রক্ষা করে দিনটি খ্রিস্টীয় কায়দায় ধর্মীয় ভাবগাম্ভীর্যের মধ্য দিয়ে পালন করা হচ্ছে। সেখানে অতীতের সব ধর্মীয় আচারের মতোই যথাযথ নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। কাজেই অন্যসব ধর্মের মতো মনুষত্ব ও সহমর্মিতার উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত হিসেবে সেখানেও দিনটি নির্জঞ্ঝাট পালন করবে- সেটাই সবার বিশ্বাস।

রাজধানীর সোনারগাঁও, র্যাডিসন, ওয়েস্টিন, লা মেরেডিয়ানসহ বড় বড় হোটেল আলোকমালায় সজ্জিত করা হয়েছে। বড়দিন উপলক্ষে এসব হোটেলে শিশুদের জন্য রয়েছে ক্রিসমাস কিডস পার্টিসহ নানা ধরনের খেলার আয়োজন। বিশেষ কেক ও কুকিজের ব্যবস্থা করেছে সোনারগাঁও হোটেল। র্যাডিসন ওয়াটার গার্ডেন, ওয়েস্টিনও অনুরূপ আয়োজন করেছে।

প্রতিক্ষণ/এডি/তাজিন

আরো সংবাদঃ

মন্তব্য করুনঃ

পাঠকের মন্তব্য



আর্কাইভ

February 2024
S S M T W T F
 12
3456789
10111213141516
17181920212223
242526272829  
20G